বিশ্বকাপ সম্ভাবনা উবে গেল ইতালি-চিলি-ডাচদের

বাছাইপর্বের বাধা পেরোতে না পারায় বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ে চারবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়ন ইতালি। দুইবার ফাইনালে খেলা নেদারল্যান্ডস কিংবা দুইবার কোপা চ্যাম্পিয়ন চিলিও নেই এবারের মেগা ইভেন্টে। তারপরও রাশিয়া বিশ্বকাপে তিনটি দেশের খেলার সম্ভাবনা জেগে উঠলেও সেটা আর হচ্ছে না।


প্লে-অফে সুইডেনের কাছে হেরে গেলেও সবশেষ র্যাংকিংয়ে এক ধাপ এগুনো ইতালি কিংবা নেদারল্যান্ডস-চিলি রাশিয়ার টিকিট পেতে পারে বলে গুঞ্জন উঠেছিল। বাছাইপর্বে প্লে-অফে ওশেনিয়া অঞ্চলের দল নিউজিল্যান্ডকে হারিয়ে শেষ দল হিসেবে বিশ্বকাপ নিশ্চিত করা পেরু রাশিয়ার টিকিট নিশ্চিত করলেও বিশ্বকাপ থেকে ছিটকে পড়ার শঙ্কা তৈরি হয়েছিল দক্ষিণ আমেরিকা অঞ্চলের দলটির।

নিয়ম অনুয়ায়ী ফিফার সদস্য রাষ্ট্রের ফুটবল ফেডারেশন গুলো থাকবে স্বাধীন ও স্বতন্ত্র। তবে, কপাল পুড়তে যাচ্ছিল পেরুর। কেননা দেশটির সংসদে একটি বিল উত্থাপন করা হয়। যে বিলটি পাস হলে স্বায়ত্ত্বশাসন হারাতো পেরু ফুটবল ফেডারেশন। এতে বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা হারাতো দলটি। সম্প্রতি পেরু ফুটবল ফেডারেশনের ওপর দেশটির সরকারি হস্তক্ষেপের অভিযোগ উঠলেও পালোমা নোসিডা নামে পেরুভিয়ান কংগ্রেসের এক নারী সদস্য টুইটারের মাধ্যমে জানিয়েছেন, ‘পেরু ফুটবল ফেডারেশনকে সরকারের নিয়ন্ত্রণে নেয়ার যে বিল উত্থাপন করা হয়েছিল, তা প্রত্যাহার করা হয়েছে। আমাদের লক্ষ্য ছিল বিশ্বকাপে খেলা। সেটা অর্জিত হয়েছে। এখন আমরা সবাই একই ফুসফুস থেকে আওয়াজ বের করে চিৎকার করবো। আনন্দ-উল্লাস করবো।’
এর আগে জানা যায়, পেরুর কনগ্রেসম্যান পালোমা নোসিডা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকে নিয়ন্ত্রণ করার জন্য ইনস্টিটিউট অব স্পোর্টস প্রতিষ্ঠা করতে চেয়েছিলেন। যা ফিফার নিয়মের সঙ্গে পরিপন্থি। ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে সরকারের বিরোধিতার কারণে বিশ্বকাপ থেকে পেরুকে বাদ দিতে পারতো বিশ্ব ফুটবলের সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রণ সংস্থা ফিফা। পেরু বিশ্বকাপ খেলতে না পারলে ইতালি, নেদারল্যান্ডস কিংবা বিশ্বকাপ বাছাইপর্ব পেরোতে না পারা সাউথ আমেরিকার আরেক দল চিলিকে দিয়ে হতে পারতো ৩২তম দলের শূন্যস্থান পূরণ। সেক্ষেত্রে ফিফার সদস্য দেশগুলোই ভোটাভুটির মাধ্যমে ঠিক করতো কোন দল যাবে বিশ্বকাপে।

Leave a Reply