মা-বাবার খোঁজে চলন্ত বাসের নিচে ৮০ কিলোমিটার!


ছোট্ট দু’টি ছেলে বাবা-মায়ের কাছে যাওয়ার জন্য বাসের নিচে চাকার কাছে লুকিয়ে প্রায় ৮০ কিলোমিটার পথ পাড়ি দিয়েছে। চীনের দক্ষিণ গুয়াংশি প্রদেশের এক দরিদ্র গ্রামের অধিবাসী ছেলে দু’টির বাসের নিচে এভাবে লুকিয়ে থাকার ছবি ছড়িয়ে পড়ার পর দেশটিতে অভিভাবকহীন শিশুদের ভালোমন্দ নিয়ে তীব্র সমালোচনা আর নিন্দার ঝড় বইছে অনলাইনে।

চীনের রাষ্ট্রীয় গণমাধ্যমে ওই দুই ছেলের সংবাদটি প্রথম আসলেও সেখানে তাদের নাম প্রকাশ করা হয়নি। নিজ গ্রাম থেকে তারা তাদের বাবা-মাকে খুঁজতে বেরিয়েছিল। তারা পাশের গুয়াংডং প্রদেশে থেকে কাজ করেন।

গত ২৩ নভেম্বর ছেলে দু’টোর নিখোঁজ হওয়ার কথা জানান তাদের এক শিক্ষক। আর ওই দিনই একটি বাস স্টেশনে বিরতিতে থেমে থাকা একটি গাড়ির নিচের অংশে পাওয়া যায় তাদের। প্রকাশিত ছবি আর ভিডিওতে দেখা যায়, বাচ্চা দু’টো কাদামাটিতে আপাদমস্তক ঢাকা অবস্থায় বাসের তলা ধরে ঝুলে আছে।

সাউদার্ন মর্নিং পোস্টের সূত্রে বিবিসি জানায়, ওই ছেলেদের বয়স আনুমানিক আট থেকে নয় বছর। বাসটি একটি স্টেশনে থামার পর সেখানকার নিরাপত্তাকর্মীরা তাদের দেখতে পায়।

বাসটি টানা প্রায় তিন মাইল লম্বা খাঁড়া ঢালু রাস্তা পার হয়ে ওই স্টেশনে পৌঁছেছিল। এরপরও ছেলে দু’টো পুরোপুরি অক্ষত থাকায় বিস্ময় প্রকাশ করেন বাসের কর্মীরা। বাসের এক কর্মী জানান, শিশু দু’টোর গড়ন খুবই রোগা হওয়ায় বাসের নিচে তারা সহজেই লুকাতে পেরেছিল।

কর্মীরা জানান, বের করার পর দু’জনকে এভাবে বিপজ্জনক উপায়ে চলাচলের ব্যাপারে নানা প্রশ্ন করা হলেও কোনো প্রশ্নেরই জবাব দিচ্ছিল না তারা। পরে আমরা বুঝতে পারি, ছেলে দু’টো তাদের মা আর বাবার জন্য খুব বেশি ব্যাকুল হয়ে ছিল। ওরা গাড়ির নিচে লুকিয়ে ছিল কারণ যেন কোনোভাবে তাদের বাবা-মাকে খুঁজে পেতে পারে।

স্থানীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদনে বলা হয়, এই দুই শিশুকে খুঁজে পাওয়ার পর তাদের আত্মীয়দের জানানো হয়। ওই দিন সন্ধ্যায়ই আত্মীয়রা এসে তাদেরকে ফিরিয়ে নিয়ে যায়।

Leave a Reply